1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. admin@zzna.ru : admin@zzna.ru :
  3. sarderamun830@gmail.com : Sarder Alamin : Alamin Sarder
  4. wpsupp-user@word.com : wp-needuser : wp-needuser
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০২:৫৭ অপরাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা,উপজেলা-থানা,পৈারসভা,কলেজ ও ইউনিয়ন পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক ।
সংবাদ শিরনাম :
পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়াকে নিয়ে অপপ্রচার, বিক্ষুব্ধ বাকেরগঞ্জবাসী পিয়নের চাকরি করেই কোটিপতি জাহাঙ্গীর গৌরনদীতে উৎসবমুখর পরিবেশে রথযাত্রা দি নিউ লাইফ/ অত্যাধুনিক চিকিৎসায় আলোর পথে ফিরছে মাদকাসক্ত সেবাগ্রহণকারীরা ! গৌরনদীতে নারিকেল গাছের চারা বিতরণ মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘরে ছবিসহ নাম উল্লেখ থাকলেও স্বীকৃতি পাইনি আব্দুস সাত্তার অনিয়ম হয়নি, যথানিয়মেই চাল বিতরণ করা হয়েছে – নিয়ামতি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বরিশালে চাঁদাবাজি মামলায় ২ আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ গৌরনদী পৌরসভার উপ-নির্বাচন, মেয়র পদে জনগণের আস্থা ‘ জয়নাল আবেদীন’ উপ-নির্বাচন, গৌরনদীতে নারিকেল গাছ প্রতীকের সমর্থকদের মারধরের অভিযোগ

বরিশালে মা ইলিশ রক্ষা অভিযান, ৬৩৮ জনের কারাদন্ড

  • প্রকাশিত : সোমবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২১
  • ১০৫ 0 সংবাদ টি পড়েছেন

শামীম আহমেদ :: মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে গত ২১ দিনে গোটা বরিশাল বিভাগে ৬৩৮ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। গত ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া এ অভিযান চলবে আজ ২৫ অক্টোবর মধ্যরাত পর্যন্ত।

এছাড়া অভিযান চলার সময় গত ১৩ দিনে ৫৫ লাখ মিটারের বেশি জাল জব্দ করা হয়, যার বাজার মূল্য ১১ কোটি ৯৬ লাখ টাকার বেশি বলে জানিয়েছে বরিশাল বিভাগীয় মৎস্য অধিদপ্তর।

বরিশাল মৎস্য অধিদপ্তর সূত্র জানায়, গত ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া এ অভিযানে ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশ রক্ষায় বিভাগে মোট ৮৭১টি ভ্রাম্যমাণ আদালত বসে। অভিযান পরিচালিত হয় এক হাজার ৫ শত টি। এসব অভিযান থেকে ৮ দশমিক ৭৬১ মেট্রিক টন ইলিশ জব্দ করা হয়।

অধিদপ্তর সূত্রে আরও জানা যায়, বরিশাল বিভাগে ভ্রাম্যমাণ আদালত ও অভিযান পরিচালনাকালে গত ২১ দিনে ৫০৪টি অবতরণ কেন্দ্র, ৩ হাজার ৭১৮টি মাছঘাট, সাত হাজার ১শত টি আড়ত, পাঁচ হাজার ৯২৮টি বাজার পরিদর্শন করা হয়। এছাড়া মামলা হয়েছে ৭৫০টি। এছাড়া ১৯ লাখ টাকা জরিমানা করার পাশাপাশি নিলামকৃত আয় হয়েছে প্রায় দুই লাখ টাকা।

মৎস্য অধিদপ্তর বরিশাল বিভাগের উপ-পরিচালক আনিছুর রহমান তালুকদার জানান, ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ মৌসুমে কেউ মাছ আহরণে নদীতে নামলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এ ব্যবস্থা আরও কঠিন হতে চলেছে। কাউকে এ বিষয়ে ছাড় দেওয়া হচ্ছে না।

সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী ২২ দিন ইলিশ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ, ক্রয়-বিক্রয় ও বিনিময় নিষিদ্ধ। এ নির্দেশনা অমান্য করায় নেওয়া হচ্ছে আইনানুগ ব্যবস্থা। নিষেধাজ্ঞার এ সময়কে ঘিরে বিভাগের ছয় জেলার জেলে পরিবারের জন্য ছয় হাজার ৯৪২ দশমিক ৪৮ মেট্রিক টন ভিজিএফের চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। ফলে প্রতি পরিবার ২০ কেজি করে চাল পেয়েছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ