1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. admin@zzna.ru : admin@zzna.ru :
  3. sarderamun830@gmail.com : Sarder Alamin : Alamin Sarder
  4. wpsupp-user@word.com : wp-needuser : wp-needuser
রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:১০ অপরাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা,উপজেলা-থানা,পৈারসভা,কলেজ ও ইউনিয়ন পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক ।
সংবাদ শিরনাম :
পরিবারের উদ্যোগে প্রয়াত সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরনের দশম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত মানবিক কাউন্সিলর সুলতান মাহমুদের উদ্যোগ, সাড়ে ৪ হাজার মানুষকে ঈদ উপহার বিতরণ হিজলায় পুলিশ সদস্যদের ওপর মৎস্য অধিদপ্তরের অতর্কিত হামলা সুলভ মুল্যে ইফতার বুকিং নিচ্ছে ‘লবস্টার রেস্ট্রুরেন্ট ও কনভেনশন হল’  সুলভ মুল্যে মানসম্পন্ন ইফতার বিক্রি করছে ‘খাবার বাড়ি সুইটস এন্ড রেস্ট্রুরেন্ট’ বাংলাদেশ মেডিকেল টেকনোলজিস্ট এ্যাল্যায়েন্স (বিএমটিএ) পূর্ণাঙ্গ কমিটি প্রকাশ বরিশালে পুর্ব শত্রুতার জেরে ৪ জনকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ, শেবাচিমে ভর্তি বসিক উপ নির্বাচনে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মো: রাশিক হাওলাদার চরকাউয়া খেয়াঘাটে অপ্রতিরোধ্য জুয়ার আসর ! বরিশালে ’’শিকদার এক্সপ্রেস’ কুরিয়ার এন্ড পার্সেল সার্ভিসের শুভ উদ্বোধন

আমাদের সামনে বিকল্প কোন পথ নেই: ফখরুল

  • প্রকাশিত : শনিবার, ১১ মার্চ, ২০২৩
  • ৫৭ 0 সংবাদ টি পড়েছেন
নিজস্ব প্রতিবেদক // বিএনপির সামনে বিকল্প কোন পথ নেই বলে মনে করছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত এক মানববন্ধনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার খায়েশ হয়েছে। তাই তারা নীল নকশার মাধ্যমে ২০২৪ এ নির্বাচন করতে চায়। তারা আজীবন ক্ষমতায় থাকতে চায়৷ এদেশ হচ্ছে তাদের জমিদারি। আমাদের সঙ্গে প্রজার মত ব্যবহার করছে। আমাদের রাস্তায় নামতে হবে। জনজণের উত্তাল তরঙ্গে আন্দোলন সৃষ্টি করে তাদের পরাজিত করতে হবে।

‘ভয় পেয়ে বিএনপি নির্বাচনে আসবে’ মন্ত্রীদের এমন মন্তব্যের জবাবে ফখরুল বলেন, পরিষ্কার করে বলে দিতে চায় বিএনপি এই সরকারের অধীনে, হাসিনার অধীনে, এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশ নেবে না। আমরা ১০ দফা ঘোষণা করেছি। সেখানে বলেছি সরকারের পদত্যাগ করতে হবে, সংসদ বিলুপ্ত করতে হবে, নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন ও তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তবেই বিএনপি নির্বাচনে যাবে।

মির্জা ফখরুল অভিযোগ করেন, ক্ষমতাসীনরা নতুন করে গ্রেপ্তারের ভয় দেখানো শুরু করেছে। তারা গ্রেপ্তার, মামলা দিয়ে দেশের মানুষকে দমিয়ে রাখতে চায়। গত ১৪ বছর তারা একই অস্ত্র ব্যবহার করেছে। কিন্তু তারা সফল হয়নি। তারা বিএনপির নেতৃত্ব ধ্বংস করতে চায়। জনগণের ন্যায্য দাবি উপেক্ষা করে একদলীয় বাকশাল করতে চায়৷ সরকার দেশকে আজ নরকে পরিণত করেছে।

তিনি বলেন, সিদ্দিকবাজারে ভবন বিস্ফোরণ, চট্টগ্রামে ও সায়েন্স ল্যাবের বিস্ফোরণ হলো। কারণ সরকারের যে সব ডিপার্টমেন্টের এসব দেখার কথা তারা তা দেখছে না৷ তারা দায়িত্ব উপেক্ষা করছে। এসব ঘটনার দায় সরকারকে নিতে হবে।

ফখরুল বলেন, অতীতে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের জন্য ১৭৩ দিন সহিংস আন্দোলন করেছে আওয়ামী লীগ- জামায়াত। মানুষ হত্যা করেছে। বিএনপির শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছে। তা দেখে সরকারের গাত্রদাহ হচ্ছে। সরকার এখন উস্কানি দিচ্ছে, বারবার উত্তেজিত করার চেষ্টা করছে। আমাদের সামনে বিকল্প কোন পথ নেই। অনেক দুষ্টামি করেছে সরকার। পঞ্চগড়ে সাম্প্রদায়িক ঘটনা সৃষ্টি করেছে। সেখানে প্রশাস নীরব ভুমিকা পালন করেছে৷ এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত বিএনপির ১৮১ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসব বন্ধ করতে হবে। এভাবে সাম্প্রদায়িক-সম্প্রীতি নষ্ট করে এদেশের মানুষকে বোকা বানানো যাবে না।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ