1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. sarderamun830@gmail.com : Sarder Alamin : Alamin Sarder
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা,উপজেলা-থানা,পৈারসভা,কলেজ ও ইউনিয়ন পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক ।
সংবাদ শিরনাম :
চরকাউয়া খেয়াঘাটে অপ্রতিরোধ্য জুয়ার আসর ! বরিশালে ’’শিকদার এক্সপ্রেস’ কুরিয়ার এন্ড পার্সেল সার্ভিসের শুভ উদ্বোধন বরিশালে মাতৃছায়া মানব কল্যাণ সংস্থার ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী ববির বহিষ্কৃত ছাত্র বাকীর খুটির জোর কোথায়, অভিযোগের তীর প্রক্টরের দিকে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে খালিদ কে দেখতে চাই বাকেরগঞ্জবাসী বদরুল আলম’কে ভাইস চেয়ারম্যান পদে পেতে চায় উপজেলাবাসী জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসন, বরিশাল বিভাগ থেকে আলোচনায় যারা কথিত ছাত্রলীগ নেতা জুবায়েরের খুটির জোর কোথায়! বিদ্যুৎ বিলের নামে চাঁদা কালেকশন হিজলায় নৌকার সমর্থকের হাতের রগ কাটার পর বসতঘরে অগ্নিসংযোগ হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জ নৌকার কর্মী-সমর্থকদের উপর অব্যাহত হামলা-আহত ২০-২৫!

ওড়িশার স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে গুলি

  • প্রকাশিত : রবিবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৪৪ 0 সংবাদ টি পড়েছেন
আন্তর্জাতিক ডেস্ক // গুলিবিদ্ধ ভারতের ওড়িশা রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী নবকিশোর দাস। গুলি চালিয়েছেন ওড়িশা পুলিশেরই এক অ্যাসিসট্যান্ট সাব-ইনস্পেক্টর (এএসআই)। পুলিশ জানিয়েছে, কমপক্ষে দুইটি গুলি করা হয়েছে মন্ত্রী নবকিশোর দাসের বুকে। গুরুতর আহত স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

ওড়িশার ব্রজরাজনগরের এসডিপিও গুপ্তেশ্বর ভয় জানিয়েছেন, রোববার সকালে ওড়িশার ঝাড়সুগুড়া জেলার ব্রজরাজনগরে গান্ধী চকের কাছে এই কাণ্ড ঘটেছে। ঝাড়সুগুড়ায় একটি অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন মন্ত্রী। তখনই তাকে লক্ষ্য করে হঠাৎ গুলি চালান অ্য়সিস্টান্ট সাব ইনস্পেক্টর পদমর্যাদার গোপাল দাস।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, গুলি লাগার পরেই গুরুতর আহত অবস্থায় কাছের হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় নবকিশোরকে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঝাড়সুগুড়া বিমানবন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখান থেকে বিমানে করে ভুবনেশ্বরের এক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, যখন মন্ত্রী গাড়ি থেকে নামেন, তখন তাকে স্বাগত জানানোর জন্য লোকজন জড়ো হন। ভিড়ের মধ্যে থেকেই গুলির শব্দ শোনা যায়। তার পরেই এক পুলিশ কর্মীকে ছুটে পালাতে দেখি।

পুলিশ জানিয়েছে, ওড়িশা স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে গুলি করার সময় পুলিশের পোষাকেই ছিলেন গোপাল। তিনি কেন এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন, এখনও জানা যায়নি। রোববার ব্রজরাজনগরের এই কর্মসূচিতে কড়া নিরাপত্তা মোতায়েন ছিল। তাতে নজর রাখার জন্যই গোপালকে নিয়োগ করা হয়েছিল। এই ঘটনার পর পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

এদিকে, মন্ত্রীকে গুলি চালানোর ঘটনার পরেই তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়। প্রতিবাদে গান্ধী চকে ধর্নায় বসেছেন বিজেডি নেতা-কর্মীরা। তাদের অভিযোগ, এই গোটা ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত ছিল।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ