1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. sarderamun830@gmail.com : Sarder Alamin : Alamin Sarder
সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:০১ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা,উপজেলা-থানা,পৈারসভা,কলেজ ও ইউনিয়ন পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক ।

ঝালকাঠিতে আগুনে ভস্মীভূত ৬ বসতঘর, মাদকসেবীকে গণপিটুনি

  • প্রকাশিত : শনিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২২
  • ২৬ 0 বার সংবাদি দেখেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক // ঝালকাঠির রাজাপুরে আগুনে ছয়টি বসতঘর ভস্মীভূত হয়ে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, আগুনে প্রায় ৫০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বিকেলে উপজেলার মঠবাড়ি ইউনিয়নের উত্তর সাউথপুর গ্রামে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এদিকে অগ্নিকাণ্ডের সন্দেহে স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য মো. আহসান কবিরের ছেলে বাপ্পি হাওলাদারকে (৩০) গণপিটুনি দিয়েছে স্থানীয় বাসিন্দারা। অভিযোগ রয়েছে- বাপ্পি মাদকাসক্ত।

আগুনে সাবেক ইউপি সদস্য মো. আহসান কবির, রাজাপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী মো. আতিকুর রহমান ফারুক, প্রয়াত আলম হাওলাদার ও তার ভাই টিপু হাওলাদার, জেসমিন বেগম এবং কামরুজ্জামান শিমুলের ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, আহসান কবিরের মেঝ ছেলে বাপ্পি একজন মাদকসেবী। মাদকের টাকার জন্য প্রায়ই তিনি ঘরে ভাঙচুর করতেন। বেশ কয়েকবার তাকে রিহ্যাব ও জেলহাজতে পাঠাতে বাধ্য হয় পরিবার।

মা নেহার কবিরের অনুরোধে কয়েক মাস আগে বাপ্পিকে জেল থেকে ছাড়িয়ে আনা হয়। শুক্রবার বিকেলে বাপ্পি মাদক সেবনের জন্য পরিবারের কাছে টাকা দাবি করেন। টাকা না পেয়ে নিজের বাড়িতেই আগুন ধরিয়ে দেন। এতে তাদের বসতঘর-সহ ছয়টি ঘর পুড়ে যায়।

খবর পেয়ে রাজাপুর ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর করে আগুন নিয়ন্ত্রণে  আনে। তবে এর আগেই ৬টি বসতঘর-সহ ঘরের মালামাল অব আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত আতিকুর রহমান ফারুক ও দুবাই প্রবাসী শামিমের স্ত্রী নিলা বেগম জানান, বাপ্পি মাদকের টাকার জন্য নিজেদের ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। সেই আগুনে আমাদের ৬টি বসতঘর সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে গেছে।

তবে অভিযুক্ত বাপ্পির বাবা আহসান কবির এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি। রাজাপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ষ্টেশন অফিসার আব্দুল খালেক বলেন, ক্ষতির পরিমাণ ও আগুনের কারণ এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। তদন্ত সাপেক্ষে পরে জানানো হবে।

রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুলক চন্দ্র রায় বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ফোর্স পাঠানো হয়েছিল। তবে কারো কাছ থেকে কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ