1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. sarderamun830@gmail.com : Sarder Alamin : Alamin Sarder
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৪৮ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা,উপজেলা-থানা,পৈারসভা,কলেজ ও ইউনিয়ন পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক ।

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখা

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১ নভেম্বর, ২০২২
  • ২৫ 0 বার সংবাদি দেখেছে

‘খেলাম মার , দিলো মামলাও’

বরিশাল সদর উপজেলাধীন চরকাউয়া ইউনিয়নের কর্ণকাঠীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই ভাইয়ের মধ্যে উত্তেজনার বিষয়ে এবার মুখ খুলেছেন আহত আরেক ছোট ভাই। এনিয়ে তার ও তার পরিবারের বিরুদ্বে থানায় মিথ্যা অভিযোগ এনে মামলা দায়ের ও সে ঘটনা নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের নিন্দা ও প্রতিবাদ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন হামলায় আহত ছোট ভাই কর্নকাঠী এলাকার বাসিন্দা মোঃ আইয়ুব আলী খান।

সে বিজ্ঞপ্তিতে আইয়ুব আলী খান জানান, কর্ণকাঠী এলাকার খান বাড়িতে আমি ও আমার বড় ভাই নুর জামাত খানসহ অন্যান্য ভাইরাও বসবাস করতেছি। ইতিপুর্ব থেকেই তার সাথে আমাদের জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। সম্প্রতি ঘুর্ণিঝড়ে আমাদের পারিবারিক কবরস্থানের পার্শ্বে থাকা একটি গাব গাছের ডাল বৈদ্যুতিক তারের ওপর পড়ায় বিদ্যুৎ বিভাগের দায়িত্বরত লোকজন সেই ডালটি কেটে ফেলেন। আমি পার্শ্ববর্তী মসজিদের সামনে থাকা একটি কাঠাল গাছ ভেঙ্গে পড়ায় কর্তন করা সেই গাছের ডাল এনে গাছটিতে রক্ষায় বেধে দেই। বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত হয়েই আমার বড় ভাই নুর জামাত খান আমার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে পড়েন । তিনি সেই জমির ওপর থাকা গাব গাছটি নিজের দাবী করে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। অথচ সেই জমি আমাদের খান বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানের । ঘটনার দিন গত ২৯ অক্টোবর সকাল ৭ টায় আমার ভাই আমাকে গালিগালাজের একপর্যায়ে আমার ওপর হামলা চালায়। সে তার হাতে থাকা একটি মোটা বেতের লাঠি নিয়ে আমার দিকে তেড়ে আসে। একপর্যায়ে তিনি আমার মাথার এক পার্শ্বে সজোরে আঘাত করে।

এতে আমার মাথার পার্শ্বে মারাত্নকভাবে ফুলে যায়। এরপর পুনরায় আঘাত করতে গেলে আমি প্রতিরোধ করলে আমার ভাই নিজের আঘাতেই নিজে আঘাতপ্রাপ্ত হন। এদিকে তিনি এমনভাবে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে আমি , আমার স্ত্রী, ছেলে ও অন্ত:স্বত্তা মেয়েকে মিথ্যা অভিযোগে অভিযুক্ত করে মিথ্যা মামলা ও সংবাদ প্রকাশ এমনকি আমাদের বিরুদ্বে সংবাদ সম্মেলনও করেন । এছাড়া তিনি তার সামান্য আঘাত নিয়ে মামলার ধারাকে কঠিনতর করার জন্য নিজের মেয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল হাসপাতালের নার্স হওয়ায় তার প্রভাবে ভর্তির অযোগ্য হলেও ভর্তি রয়েছেন । এছাড়া আমার বড় ভাই নুর জামাত ইতিপুর্ব থেকে আমাদের সমুদয় সম্পত্তি নিজের দখলে আনতে নানাভাবে পাঁয়তারা চালিয়ে যাচ্ছেন। এমনকি লোকজন দিয়ে আমার ছোট ছেলে তিসানকে মারধরও করান তিনি। সেই ভাড়াটে লোকজন আমিসহ আমার অন্তঃস্বত্তা মেয়েকেও ভয়ভীতিও দেখাচ্ছেন। এছাড়া ঐসকল লোকজন দিয়ে বরিশালের বিভিন্ন স্থানে গিয়ে আমাদের হয়রানী করে চলেছন। তার ছেলের শ্বশুর হুমায়ুন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার কার্যালয়ে স্টেনো হিসেবে কর্মরত থাকলেও কমিশনার মহোদয়ের পিএস বলে প্রভাব খাটিয়ে এমনভাবে মিথ্যা মামলা ও হয়রানী করে চলেছেন তারা। এর আগে নুর জামাত যখন অসহায়ত্ব জীবন যাপন করছিলেন তখন আমি আমার অন্য ভাইদের সহযোগীতায় তার ৭টি মেয়ের বিয়ের ব্যবস্থা করে দেই।

তুচ্ছ ঘটনাটি মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে প্রসারিত করে আমার আপন বড় ভাই হয়েও তিনি আমিসহ আমার পরিবারকে মিথ্যা মামলাসহ নানাবিধ হয়রানী করে চলেছেন। আমি নিজেও তার আঘাতে আহত হয়ে মানবিক খাতিরে বিষয়টি সমাধানে এখন অবদি তার বিরুদ্বে কোন মামলা দেইনি। অথচ তিনি আমাকে ভাই হয়েও এমনভাবে হয়রানী করছেন । আমার বিরুদ্বে মিথ্যা অভিযোগ এনে অনলাইন নিউজ পোর্টাল দখিনের ক্রাইম ও পত্রিকায় সংবাদও প্রকাশ করায়।

আমি আমার ভাইয়ের হাতে মারধরের শিকার হয়েও তিনি আমার বিরুদ্বে মামলা ও হয়ারনী করছেন বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। পাশাপাশি এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি সুষ্ঠু তদন্তের দাবী জানাই।

প্রতিবাদন্তে

আইয়ুব আলী খান

বাসিন্দা চরকাউয়া কর্ণকাঠী, বরিশাল সদর।

 

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ