1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. admin@zzna.ru : admin@zzna.ru :
  3. sarderamun830@gmail.com : Sarder Alamin : Alamin Sarder
  4. wpsupp-user@word.com : wp-needuser : wp-needuser
সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০২:০১ অপরাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা,উপজেলা-থানা,পৈারসভা,কলেজ ও ইউনিয়ন পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক ।
সংবাদ শিরনাম :
বসিক উপ নির্বাচনে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মো: রাশিক হাওলাদার চরকাউয়া খেয়াঘাটে অপ্রতিরোধ্য জুয়ার আসর ! বরিশালে ’’শিকদার এক্সপ্রেস’ কুরিয়ার এন্ড পার্সেল সার্ভিসের শুভ উদ্বোধন বরিশালে মাতৃছায়া মানব কল্যাণ সংস্থার ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী ববির বহিষ্কৃত ছাত্র বাকীর খুটির জোর কোথায়, অভিযোগের তীর প্রক্টরের দিকে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে খালিদ কে দেখতে চাই বাকেরগঞ্জবাসী বদরুল আলম’কে ভাইস চেয়ারম্যান পদে পেতে চায় উপজেলাবাসী জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসন, বরিশাল বিভাগ থেকে আলোচনায় যারা কথিত ছাত্রলীগ নেতা জুবায়েরের খুটির জোর কোথায়! বিদ্যুৎ বিলের নামে চাঁদা কালেকশন হিজলায় নৌকার সমর্থকের হাতের রগ কাটার পর বসতঘরে অগ্নিসংযোগ

স্বামীর সঙ্গে পরকীয়া সন্দেহে নারীর চুল কাটলেন গৃহবধূ

  • প্রকাশিত : বুধবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২২
  • ৪৬ 0 সংবাদ টি পড়েছেন
নিজস্ব প্রতিবেদক // মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় স্বামীর সঙ্গে পরকীয়া সন্দেহে এক নারীকে শারীরিক নির্যাতনের পর চুল কেটে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আরেক নারীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুজনকে আটক করা হয়েছে।

ঘটনার পর ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে গজারিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। আজ বুধবার গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা সোহেব আলী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগ থেকে জানা গেছে, গত শনিবার রাতে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে ভুক্তভোগী সিলেট হযরত শাহ জালাল ও শাহ পরান (রা.) মাজার জিয়ারতের উদ্দেশে রওনা হন। এ সময় গাড়িতে প্রায় ৪৭ জন যাত্রী ছিলেন। তাদের মধ্যে একজন ছিলেন পাশের দৌলতপুর গ্রামের তাইজুদ্দিন। এ কারণে তাইজুদ্দিনের স্ত্রী ফরিদা বেগমের সন্দেহ হয়- তার স্বামীর সঙ্গে ভুক্তভোগী নারীর সম্পর্ক আছে।

এদিকে, গত সোমবার রাত ১টার দিকে মাজার জিয়ারত শেষে তারা গজারিয়া ভবেরচর বাসস্ট্যান্ডে নামেন। এ সময় সেখানে নামার পরই তাইজুদ্দিনের স্ত্রী ফরিদার নেতৃত্বে ৭ থেকে ৮ জন যুবক ভুক্তভোগী নারীকে গাড়িতে তুলে নেন। পরে রসুলপুর খাদ্য গুদাম সংলগ্ন একটি নির্জন জায়গায় নিয়ে ভুক্তভোগীকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করে তারা। একপর্যায়ে ওই ভুক্তভোগী নারী জ্ঞান হারান। পরে তার মাথার চুল কেটে দেওয়া হয়। এ সময় এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পাঠান।

ভুক্তভোগী নারী বলেন, ‘আমার স্বামী প্রায় ১২ বছর আগে আমাকে ছেড়ে অন্য আরেক জনকে বিয়ে করে। আমাদের দাম্পত্য জীবনে তিন মেয়ে আছে। সংসারে হাল ধরতে বাধ্য হয়ে ক’টি কারখানায় শ্রমিক হিসেবে কাজ শুরু করি। পরবর্তী সময়ে ফেরি করে কাপড় বিক্রির ব্যবসা করেছি।’

গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা. কান্তা রানী দাস বলেন, ‘ভুক্তভোগী নারীর শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে আমাদের হাসপাতালেই ভর্তি করা হয়েছে।’

গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা সোহেব আলী বলেন, ভুক্তভোগীকে মারধর করে চুল কেটে দেওয়ার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। তবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ