1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. admin@zzna.ru : admin@zzna.ru :
  3. sarderamun830@gmail.com : Sarder Alamin : Alamin Sarder
  4. wpsupp-user@word.com : wp-needuser : wp-needuser
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ১০:৫০ অপরাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা,উপজেলা-থানা,পৈারসভা,কলেজ ও ইউনিয়ন পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক ।
সংবাদ শিরনাম :
গৌরনদী পৌরসভার আস্থার প্রতিক এইচ. এম জয়নাল আবেদীন অনুশোচনায় ভুগছেন সাকিব, অনুদান নিয়ে হাজির মাদ্রাসায় ! বাকেরগঞ্জে ১২ ইউপি চেয়ারম্যানের সভা বর্জন, ফেরত যাচ্ছে উন্নয়নে বরাদ্দকৃত অর্থ ! মেহেন্দিগঞ্জে স্কুল শিক্ষককে কুপিয়েছে সন্ত্রাসীরা বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন/ অব্যাহত হুমকির শিকার আনারস প্রতিকের সমর্থকরা বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, স্বপনের বিজয়ের লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ উপজেলাবাসী তাসরিফুল হিকমাহ প্রি-ক্যাডেট মাদ্রাসার ৫ শিক্ষার্থীকে হেফজ সবক প্রদান বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন/ ফারজানার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত প্রতিপক্ষ, প্রচারণায় বাধার অভিযোগ গৌরনদী উপজেলা নির্বাচন/ হারিছের পক্ষে গণজোয়ার, অপেক্ষা ভোটগ্রহণে! বাকেরগঞ্জে বিএনপি নেতা শাহীনকে দিয়ে চাঁদা তুলছেন চেয়ারম্যান খোকন

দেশের প্রথম ছয় লেন সেতু মধুমতি, সুবিধা পাবে ১০ জেলা

  • প্রকাশিত : সোমবার, ১০ অক্টোবর, ২০২২
  • ৮০ 0 সংবাদ টি পড়েছেন
নড়াইল প্রতিনিধি // অবশেষে খুলেছে গোপালগঞ্জ ও নড়াইলের সীমান্তে নির্মিত দেশের প্রথম ছয় লেনের মধুমতী সেতু। যা স্থানীয়ভাবে কালনা সেতু নামে পরিচিত। সোমবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে সেতুটির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এটি নড়াইল, গোপালগঞ্জ, খুলনা, মাগুরা, সাতক্ষীরা, চুয়াডাঙ্গা, যশোর এবং ঝিনাইদহ জেলাকে সংযুক্ত করেছে। প্রকল্প কর্মকর্তাদের মতে, সেতুটি চালু হওয়ার মাধ্যমে দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের মানুষ দ্রুত সড়ক যোগাযোগ সুবিধা পাবে। কারণ, সেতুটি কালনাঘাট থেকে রাজধানী ঢাকা পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটারেরও বেশি দূরত্ব কমিয়ে দিয়েছে।

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অন্তত ১০টি জেলার মানুষ কম সময়ে বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াতে সরাসরি এ সেতুর সুবিধা ভোগ করবে। এটি দেশের বৃহত্তম স্থলবন্দর বেনাপোল, যশোর থেকে ঢাকা পর্যন্ত ভ্রমণের সময়ও কমিয়ে দেবে। কারণ, এতে ঢাকা থেকে দূরত্ব হবে মাত্র ১৩০ কিলোমিটার।

জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সির (জাইকা) অর্থায়নে ৯৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে মধুমতি নদীর উপর সেতুটি নির্মিত হয়েছে।

১৪টি পিলারের উপর নির্মিত কালনা সেতুর দৈর্ঘ্য ৬৯০ মিটার ও প্রস্থ ২৭.১ মিটার। সেতুর মাঝখানে ১৫০ মিটার স্টিলের স্প্যান বসানো আছে। পদ্মা সেতুর চেয়েও ২ লেন বেশি থাকা এই সেতুর মাঝখানের ৪টি লেন দিয়ে সার্বক্ষণিক ভারী যানবাহন এবং সেতুর দুই পাশের দুটি লেন দিয়ে রিকশা-ভ্যান-ইজিবাইক ও মোটরসাইকেলসহ নানান প্রকার যানবাহন চলাচল করবে। সেতুর উভয় পাশে ৪.২৭৩ কিলোমিটার সংযোগ সড়ক রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি সেতুটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। আর ২০১৮ সালের ৩০ অক্টোবর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ