1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. sarderamun830@gmail.com : Sarder Alamin : Alamin Sarder
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৫৮ অপরাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা,উপজেলা-থানা,পৈারসভা,কলেজ ও ইউনিয়ন পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক ।

মেয়াদবিহীন ডাটায় সিম কোম্পানির প্রতারণা!

  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২২
  • ৩৩ 0 বার সংবাদি দেখেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক // মোবাইল সিমের ডাটার মেয়াদ নিয়ে নাটকের শেষ নেই। নতুন করে আবারো শুরু হয়েছে ‘নাটক’। দীর্ঘদিন ধরে সিম কোম্পানিগুলো আনলিমিটেড ডাটা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও নিচ্ছিল না কার্যকর কোনো উদ্যোগ। এমন অবস্থায় সরকারের চাপাচাপিতে অবশেষে গতকাল বৃহস্পতিবার মোবাইলের ‘আনলিমিটেড’ (মেয়াদবিহীন) ডাটা প্যাকেজ এবং নিরবচ্ছিন্ন মাসিক ইন্টারনেট প্যাকেজ চালু করেছে কোম্পানিগুলো। আর মেয়াদহীন প্যাকেজ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তবে উদ্বোধনী দিনে কোম্পানিগুলো যে নতুন প্যাকেজ চালু করেছে তাকে প্রতারণামূলক বলে মনে করছেন গ্রাহকরা।

জানা গেছে, প্রাথমিকভাবে আনলিমিটেড ডাটা প্যাকেজের মধ্যে গ্রামীণফোনে ১ হাজার ৯৯ টাকায় ১৫ জিবি ও ৪৪৯ টাকায় ৫ জিবি প্যাকেজ কেনা যাবে। রবিতে ৩১৯ টাকায় ১০ জিবি, বাংলালিংকে ৩০৬ টাকায় ৫ জিবি এবং টেলিটকে ৩০৯ টাকায় ২৬ জিবি ও ১২৭ টাকায় ৬ জিবি পাওয়া যাবে। তবে এখানে ‘আনলিমিটেড’ (মেয়াদবিহীন) ডাটার কথা বলা হলেও এর সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে এক বছর।

মেয়াদবিহীন ডাটার কথা বলে এক বছর সময়সীমা নির্ধারণ করে দেয়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন সাধারণ মানুষ। তারা বলছেন, এত বেশি টাকায় অল্প ডাটা প্যাক দেয়া কোনোভাবেই যুক্তিযুক্ত হয়নি। বরং এটা নিয়ে উচ্চ মহলে ঠাট্টা করা হচ্ছে। কেননা, আমি যে টাকায় এক বছরের মেয়াদে ডাটা প্যাক কিনব সেই একই প্যাক এক মাস বা দেড় মাসে অল্প টাকায় কিনতে পারব।

হাবিব হাসান নামের এক গ্রাহক বলেন, মেয়াদবিহীন ডাটা প্যাকের কথা বলে যে এক বছর সময়সীমা বেঁধে দেয়া হচ্ছে এটা অন্যায়। যার আমার কাছে খুবই নিন্দনীয় বিষয়। কেননা, গ্রামীণফোনে ১ হাজার ৯৯ টাকায় ১৫ জিবি ডাটা প্যাক ক্রয় করে আমার কোনো লাভ নেই বরং ক্ষতি ছাড়া। একদিকে টাকার পরিমাণ বেশি, অন্যদিকে ডাটা প্যাকের পরিমাণ কম। সবকিছু মিলিয়ে এটা ‘কমফরটেবল’ হবে বলে আমি মনে করি না।

সিম কোম্পানির নির্ধারিত মূল্য আগের চেয়ে ডাটা প্যাক, মিনিট কমে আসায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। মো. মির নামের এক বাংলালিংক গ্রাহক বলেন, আমি আগে ৪৯ টাকায় ৩ জিবি ডাটা প্যাক ক্রয় করতাম। যার মেয়াদ ছিল ৪ দিন। কিন্তু হঠাৎ করে একদিন ফোনে দেখি বাংলালিংক অফিস থেকে মেসেজ দিয়েছে ৩ জিবির জায়গায় এখন ২ জিবি ডাটা প্যাক থাকবে। যেখানে আমার ৩ জিবি ডাটা প্যাক দিয়েই ৪ দিন কাভার করতে পারি না, সেখানে ২ জিবি কীভাবে কাভার হবে। এটা ডাটা প্যাক কমানোর নামে গ্রাহকের সঙ্গে হয়রানি করা হচ্ছে। ডাটা প্যাক শুধু কমেই যায় আর বাড়ে না।

তিনি বলেন, শুনলাম ডাটা মেয়াদ নাকি মেয়াদবিহীন করতেছে। আবার শুনলাম সেটার মেয়াদ নাকি এক বছর। এত বেশি টাকা দিয়ে এক বছরের জন্য ডাটা প্যাক ক্রয় করার চেয়ে যদি পুরোটাই মেয়াদবিহীন দিত তাহলে গ্রাহকরা অনেকটাই স্বস্তি লাভ করত। কিন্তু সেটা এক বছর দিয়ে কোনোভাবেই গ্রাহকের কাছে স্বস্তির বার্তা হয়ে ওঠে নাই।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ